Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

ইউটিউব থেকে ৯ বছরের শিশুর ২৫১ কোটি টাকা আয়

বিজটেক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:০৮, ২১ ডিসেম্বর ২০২০

ইউটিউব থেকে ৯ বছরের শিশুর ২৫১ কোটি টাকা আয়

ইউটিউবার রায়ান কাজী

চলতি বছর সবচেয়ে বেশি আয় করা ইউটিউবারদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে ইউটিউব। তালিকায় সবার উপরে রয়েছে খুদে ইউটিউবার রায়ান কাজী। মাত্র নয় বছরের এই শিশুর আয় ২৯ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার। টাকার অঙ্কে যা ২৫১ কোটিরও বেশি।

এর আগে ২০১৮ সালেও সবচেয়ে বেশি আয়কারী ইউটিউবারের তকমা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে বসবাস করা রায়ান কাজীর। ২০১৭ সালেও সাত বছর বয়সেও ইউটিউব থেকে আয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিল রায়ান। গত বছর ইউটিউব থেকে রায়ানের আয় ছিলো ২৬ মিলিয়ন ডলার। একই ধারাবাহিকতা এ বছরও বজায় রেখে আয়ে ইউটিউবারদের সবার ওপরের জায়গাটা টানা তৃতীয়বারের মতো নিজের কাছেই রেখেছে ওই খুদে বিস্ময়।

এ বছর ইউটিউব থেকে ২৯ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার আয় ছাড়াও আরও আয় করেছে রায়ান। নিজস্ব ব্র্যান্ডের খেলনা ও পোশাক এবং মার্কস অ্যান্ড স্পেনসার ব্র্যান্ডের পায়জামা থেকে রায়ানের আয় আনুমানিক ২০০ মিলিয়ন ডলার। এ ছাড়া টেলিভিশন চ্যানেল নিকিলোডিওন তার সঙ্গে কয়েক মিলিয়ন ডলারের চুক্তি করেছে। তবে চুক্তির অঙ্কটা অপ্রকাশিত। চ্যানেলটি নিজস্ব টিভি সিরিজ প্রচারের জন্য রায়ানকে মোটা অঙ্কেই রাজি করিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ছোটবেলায় শিশুদের খেলনার ভিডিও দেখে রায়ান মাকে বলে, কেন আমি ইউটিউবে নেই, যেখানে অন্য সব শিশুই আছে? এরপরই তিন বছর বয়সে (২০১৫) রায়ানের মা–বাবা ইউটিউবে ‘রায়ানস টয়েস রিভিউ’ নামের একটি চ্যানেল খুলে দেন। পরে অবশ্য চ্যানেলটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘রায়ানস ওয়ার্ল্ড’। আজ পর্যন্ত এই চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা চার কোটি পেরিয়ে গেছে।

এ বছরের সবচেয়ে আয় করা সেরা ১০ ইউটিউবারের তালিকায় রায়ানের পর দ্বিতীয় স্থানে আছেন যুক্তরাষ্ট্রের ২২ বছর বয়সী ইউটিউবার জিমি ডোনাল্ডসন। ‘মি. বিস্ট’ নামের ইউটিউব চ্যানেল থেকে এ বছর তিনি আয় করেছেন ২৪ মিলিয়ন ডলার। তৃতীয় স্থানে থাকা ডুড পারফেক্টের আয় ২৩ মিলিয়ন ডলার।