Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

হুয়াওয়ের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা: চিপ সংকটে প্রযুক্তি বিশ্ব

বিজটেক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৭:০০, ২০ ডিসেম্বর ২০২০

হুয়াওয়ের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা: চিপ সংকটে প্রযুক্তি বিশ্ব

কোভিড-১৯ মহামারীর ধাক্কা কিছুটা সামলে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে বিশ্ব অর্থনীতি। ভয়াবহ এ পরিস্থিতির নতুন বাস্তবতায় খাপ খাইয়ে নিতে তথ্যপ্রযুক্তি পণ্যের চাহিদাও বাড়তে শুরু করেছে। অথচ এই সময় ল্যাপটপ, স্মার্টফোন ও ট্যাবলেটসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিকস ডিভাইস ছাড়াও আধুনিক গাড়ির অত্যাবশ্যকীয় চিপের সরবরাহ সংকট দেখা দিয়েছে। চিপ সংকট দীর্ঘদিন স্থায়ী হলে বৈশ্বিক বাজারে প্রযুক্তি পণ্যের সরবরাহ সংকট সৃষ্টির আশঙ্কা করেছেন নির্মাতারা।

প্রযুক্তি খাতসংশ্লিষ্ট বিশ্লেষকদের মতে, চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের ওপর মার্কিন বাণিজ্য বিভাগের নিষেধাজ্ঞা আরোপ এবং কালো তালিকাভুক্তি চিপ সংকট দেখা দেয়ার অন্যতম কারণ। বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞার প্রভাব এবং কতদিন স্থায়ী হবে তা বিবেচনায় নিয়ে বিভিন্ন উৎস থেকে বিপুলসংখ্যক চিপ মজুদ করেছে হুয়াওয়ে। এছাড়া চিপ সংকট দেখা দেয়ার পেছনে জাপানের একটি বৃহৎ চিপ উৎপাদন কারখানায় অগ্নিকাণ্ড, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ঘোষিত লকডাউনের প্রভাব এবং ফ্রান্সে টানা ধর্মঘট পরিস্থিতির অবনতি নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

গত মে মাসে হুয়াওয়ের ওপর নতুন বাণিজ্য বিধিনিষেধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য বিভাগ। যে কারণে প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে নতুন চিপ ক্রয়াদেশ নেয়া স্থগিত করতে বাধ্য হয় তাইওয়ান সেমিকন্ডাক্টর ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি (টিএসএমসি) লিমিটেড। এর বাইরেও বেশ কয়েকটি চিপ নির্মাতা হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা স্থগিত করতে বাধ্য হয়। বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞার মুখে হুয়াওয়ের ডিভাইস ব্যবসা বিভাগের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বাধ্য হয়ে প্রতিষ্ঠানটি বিপুলসংখ্যক চিপ মজুদের পথে হাঁটে।

মার্কিন বাণিজ্য বিভাগের নতুন বিধিনিষেধের আওতায় মার্কিন প্রযুক্তি ব্যবহার করে চিপ উৎপাদন করে এমন অন্য কোনো দেশের প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করতে হলে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে লাইসেন্স নিতে হবে। যে কারণে হুয়াওয়ের কাছ থেকে চিপের নতুন ক্রয়াদেশ নেয়া বন্ধ করতে বাধ্য হয় টিএসএমসি। তবে নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞা বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসার আগে হুয়াওয়ের ক্রয়াদেশকৃত চিপ সরবরাহ করে প্রতিষ্ঠানটি।

বিশ্বজুড়ে পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইভজি সমর্থিত ফোন, ল্যাপটপ ও ট্যাবলেটের পাশাপাশি গাড়ি উৎপাদনে চিপের চাহিদা প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুতগতিতে বেড়েছে। বিনিয়োগ ঘাটতি থাকায় তারা এ ক্রমবর্ধমান চাহিদার সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারছে না।

এ বিষয়ে চীনের শেনজেনভিত্তিক সোর্সিং কোম্পানি স্যান্ড অ্যান্ড ওয়েভের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ডনি ঝাং বলেন, সমগ্র ইলেকট্রনিকস শিল্পই প্রয়োজনীয় কম্পোনেন্ট সংকটে ভুগছে। তিনি বলেন, স্মার্ট হেডফোন উৎপাদনে ব্যবহূত মাইক্রো-কন্ট্রোলার পেতে বেশ দেরি হচ্ছে। যে কারণে তিনি যে পণ্যটি নিয়ে কাজ করেন তা উৎপাদন বিঘ্নিত হচ্ছে। যে পণ্য আমরা এক মাসের মধ্যে উৎপাদন শেষ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছিলাম, তা এখন শেষ করতে দ্বিগুণ সময় লেগে যাবে।

জাপানাভিত্তিক একটি ইলেকট্রনিকস কম্পোনেন্ট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সূত্র জানায়, তারা ওয়াইফাই এবং ব্লুটুথ চিপের তীব্র সংকটে ভুগছে। যে কারণে তাদের বর্তমান ব্যাচের পণ্য উৎপাদন সম্পন্ন করতে অতিরিক্ত ১০ সপ্তাহ সময় লাগবে।

চীনভিত্তিক মোবাইল ডিভাইস ও গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো চিপ সংকটের কথা তুলে ধরে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে যে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সৃষ্ট মহামারীর ধাক্কা কাটিয়ে ভোক্তা চাহিদা বাড়লেও চিপের পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকায় ডিভাইস উৎপাদন বিঘ্নিত হচ্ছে।