Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

৮০০ বছর পর বৃহস্পতি-শনির যুগলবন্দি

বিজটেক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৩৮, ২১ ডিসেম্বর ২০২০

৮০০ বছর পর বৃহস্পতি-শনির যুগলবন্দি

সৌরজগতের সবচেয়ে বড় দু’টি গ্রহ বৃহস্পতি ও শনি মধ্যযুগের পর এই প্রথম সবচেয়ে কাছাকাছি আসতে যাচ্ছে। প্রায় ৮০০ বছর পর আকাশে এই দুই গ্রহের যুগলবন্দি দেখা যাবে বলে জানিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। ১৬ থেকে ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ একে-অপরের খুব কাছে চলে আসবে।

আজ (২১ ডিসেম্বর) এতই কাছাকাছি চলে আসবে যে, পৃথিবী থেকে দুটি গ্রহকে দেখতে জোড়া গ্রহের মতো মনে হবে। এর আগে ১২২৬ সালের ৪ মার্চ বৃহস্পতি ও শনি গ্রহ একে অপরের সবচেয়ে কাছাকাছি এসেছিল। এরপর কেটে গেছে প্রায় ৮শ বছর।

বৃহস্পতি ও শনি গ্রহের সংযোগের বিরল দৃশ্য খালি চোখেই দেখা যাবে আজ। সন্ধ্যায় আকাশে বৃহস্পতি অতিক্রম করবে শনিগ্রহকে। এসময় বৃহস্পতি ও শনি গ্রহের মধ্যে মাত্র ০.১ ডিগ্রি দূরত্ব থাকবে (তুলনায় বলা যায় চাঁদের ব্যাস ০.৫ ডিগ্রি)।

বিজ্ঞান সংগঠন অনুসন্ধিৎসু চক্র জানায়, বৃহস্পতি প্রতি ১২ বছরে সূর্যের চারদিকে একবার ঘুরে আসে, শনি গ্রহ ৩০ বছরে। যদিও প্রতি ২০ বছর অন্তর এরকম সংযোগ হয়, তবুও সবসময় তা রাতের আকাশে হয় না এবং এত কাছাকাছি আসে না। সূর্য ডোবার সঙ্গে সঙ্গে দক্ষিণ-পশ্চিম আকাশে উজ্জ্বল বৃহস্পতি সহজেই দৃষ্টিগোচর হবে, এর জন্য দূরবীন লাগবে না।

তবে নাসা জানিয়েছে, গ্রহ দুইটি এতো কাছাকাছি দেখা গেলেও বাস্তবে তাদের মধ্যে লক্ষ লক্ষ মাইল দূরত্ব বজায় থাকবে। পৃথিবীর সব প্রান্ত থেকেই দুই গ্রহের এই যুগলবন্দি দেখা যাবে। নিরক্ষরেখা বরাবর যে দেশগুলি রয়েছে, সেখান থেকে সবচেয়ে পরিস্কার দেখা যাবে এ দৃশ্য। গ্রহগুলি এতটাই উজ্জ্বল থাকবে যে গোধূলিতেও আকাশে তাদের দেখা মিলবে। তবে নিরক্ষীয় অঞ্চল থেকে অধিক দূরবর্তী উত্তর গোলার্ধের দেশগুলোতে খুবই অল্প সময়ের জন্য দেখা যাবে বিরল এ দৃশ্যের।

ভবিষ্যতে ২০৮০ সালের ১৫ মার্চ এবং ২৪০০ সালের আগে এধরণের ঘটনা দেখার সুযোগ পাওয়া যাবেনা। অর্থাৎ বর্তমানে জীবিত বেশিরভাগ মানুষেরই বিরল এ ঘটনার সাক্ষী হওয়ার এটিই শেষ সুযোগ।