Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

বন্ড ও আইপিও’র মাধ্যমে দুই হাজার কোটি টাকা তুলবে ৫ প্রতিষ্ঠান

বিজটেক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৫:৫৮, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

আপডেট: ১৫:৫৯, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

বন্ড ও আইপিও’র মাধ্যমে দুই হাজার কোটি টাকা তুলবে ৫ প্রতিষ্ঠান

দিন দিন বাড়ছে পুঁজিবাজারের আকার। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৯০তম সভায় প্রায় দুই হাজার কোটি টাকার আইপিও এবং বন্ড অনুমোদন দেয়া হয়।

এর মধ্যে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের অনুমোদন দেয়া হয়েছে ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড ও কৃষিবিদ ফিডকে। এর মধ্যে ইউনিয়ন ব্যাংক ৪২৮ কোটি টাকা ও কৃষিবিদ ফিড ২২ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। এছাড়া ইসলামী ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক ও লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বন্ড ইস্যুর অনুমোদন হয়েছে। গতকাল বিএসইসির ৭৯০তম কমিশন সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়।

তথ্যমতে, ইউনিয়ন ব্যাংক পুঁজিবাজার থেকে ৪২ কোটি ৮০ লাখ সাধারণ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ৪২৮ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এক্ষেত্রে প্রতিটি শেয়ারের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ টাকা। পুঁজিবাজার থেকে ব্যাংকটি অর্থ উত্তোলন করে এসএমই ও প্রজেক্ট অর্থায়ন, সরকারি সিকিউরিটিজ ক্রয়, শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করবে। কোম্পানিটির ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত অর্থবছরের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া নিট সম্পদমূল্য হয়েছে ১৬ টাকা ৩৮ পয়সা (কোম্পানিটি কোনো সম্পদ পুনর্মূল্যায়ন করেনি) এবং শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৭৭ পয়সা। বিগত পাঁচ বছরের ভারিত গড় হারে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৮২ পয়সা। আইপিওতে কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে যথাক্রমে প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট এবং ব্র্যাক ইপিএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

কৃষিবিদ ফিড লিমিটেডের কোয়ালিফায়েড ইনভেস্টর অফার (কিউআইও) অনুমোদন দিয়েছে বিএসইসি। কোম্পানিটি কিউআইওর মাধ্যমে প্রতিটি ১০ টাকা মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ২২ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। উত্তোলিত অর্থ দিয়ে ব্যাংকঋণ পরিশোধ, কারখানা ভবন নির্মাণ, যন্ত্রপাতি ক্রয়, ডিজেল জেনারেটর ক্রয়, ডেলিভারি ভ্যান ক্রয় এবং ইস্যু ব্যবস্থাপনা খরচ খাতে ব্যয় করবে। কোম্পানিটির ৩০ ডিসেম্বর ২০২০ সমাপ্ত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৬৭ পয়সা এবং পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতি ছাড়া এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৪৭ পয়সা। এসএমই প্লাটফর্মে লেনদেনের তারিখ থেকে পরবর্তী তিন বছর ইস্যুয়ার কোম্পানি কোনো বোনাস শেয়ার ইস্যু করতে পারবে না। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে যথাক্রমে এমটিবি ক্যাপিটাল।

এছাড়া পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত তিন কোম্পানির ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন করেছে বিএসইসি। এর মধ্যে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৩০০ কোটি টাকার, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার এবং ইসলামী ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকার বন্ড।