ঢাকা     ২১ মে ২০২৪ ||  ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রি এগিয়ে নেয়ার বিকল্প নেই

ইকবাল আহমেদ ফখরুল হাসান

প্রকাশিত: ১৫:৫৬, ৫ মে ২০২৪

সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রি এগিয়ে নেয়ার বিকল্প নেই

দেশের আইটি খাতে গত ২০ বছরে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করেছি আমরা বেসিস মেম্বার কোম্পানিগুলো । দেশের অর্থনীতি ও টেকনোলজি প্রসারে যুক্ত হয়ে আছে বেসিস মেম্বার কোম্পানিগুলোর অক্লান্ত পরিশ্রম, অর্থ ব্যয় ও আবেগ ।

আমি কখনোই মনে করিনা বেসিসের সহায়তায় সফটওয়্যার বা আইটি সার্ভিস ইন্ডাস্ট্রি এগিয়ে যাচ্ছেনা । আমার সফটওয়্যার ইন্ডাস্ট্রিতে আগমন ২০০৫ সাল থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত নিয়মিত এগিয়ে যাচ্ছে । বেসিসের সেই আগানোর পিছনে সম্মানিত বেসিস প্রতিষ্ঠাতাগণ, সকল প্রেসিডেন্টবৃন্দ ও কার্যনির্বাহী কমিটি সহ সকল স্থায়ী কমিটির সদস্যদের অবদান অপরিসীম ।

বেসিসের উদ্যোগে সরকার থেকে প্রাপ্ত এক্সপোর্ট ইনসেন্টিভ এর কারণে রপ্তানিকারক সফটওয়্যার কোম্পানিগুলো এবং ট্যাক্স ইনসেন্টিভ কারণে দেশীয় কোম্পানি গুলোর টেকসই সফটওয়্যার পণ্য নিয়ে বাজার অবস্থান অবশ্যই আমাদেরকে অনেকখানি এগিয়ে নিয়ে এসেছে ।

সেই অবস্থান থেকে আমাদেরকে আরও কতগুলো নতুন কাজ ও পলিসি নিয়ে ভাবতে হবে সামনের দিনগুলোতে ।

আমার অভিজ্ঞতা থেকে ভাবনা:

ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি: আমাদের খুব কম সংখ্যক কোম্পানি সফটওয়্যারকে নিজেদের অডিটেড সম্পদে রূপান্তর করতে পেরেছে। আমাদের সবাইকে এটা করতে হবে । ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টির মালিকানা ও সংরক্ষণে আমরা এখনও অনেক পিছিয়ে, যার ফলে সফটওয়্যার প্রস্তুতকারক ও সরকারি-বেসরকারি উভয় পর্যায়ের গ্রাহক বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করার পরও লাভবান হচ্ছেনা।

অনাকাঙ্ক্ষিত বিদেশী সফটওয়্যার: দেশীয় বাজারে প্রচুর পরিমাণ পরীক্ষিত সফটওয়্যার থাকার পরও বিদেশি সফটওয়্যার আইনি ও বেআইনি পদ্ধতিতে দেশীয় বাজারে বিদেশি সফটওয়্যারের নৈরাজ্য আমাদের দেশীয় কোম্পানিগুলোকে দিনদিন দুর্বল করে যাচ্ছে। আমাদের সকলের সমন্বিত প্রয়াসে বেসিসের মাধ্যমে দেশে তৈরি সফটওয়্যার বিদেশ থেকে আমদানি বন্ধের নীতিমালা তৈরি ও বেআইনিভাবে আসা সফটওয়্যারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

অপরিকল্পিত সফটওয়্যার ও আইটি কোম্পানি: প্রচুর পরিমাণ স্টার্টআপ বা নতুন কোম্পানি অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হওয়া কাম্য নয় । আমাদের ছোট কোম্পানি গুলো কিভাবে পরিকল্পিত অবস্থায় গড়ে উঠতে পারে সেটা একে অপরের সহযোগিতায় অথবা বেসিসকে প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করে সমষ্টিগতভাবে পরিকল্পনা সহায়তা গড়ে তোলা যায় সেটার ব্যবস্থা গ্রহণ করা। মেম্বারশিপের শুরুতেই বেসিস থেকে কোম্পানি গুলোকে গুছানো কোম্পানি গঠনে সহায়তা করা প্রয়োজন ।

বাজার গবেষণা: পর্যাপ্ত বাজার গবেষণা ও পরিকল্পনার অভাবে নিয়মিতভাবে একই ধরনের পণ্যে বাজার সয়লাব হওয়ার সুযোগ অনেক বেশি । পরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠার সহায়তার পাশাপাশি বাজার গবেষণা তথ্যের ভিত্তিতে দেশীয় ও বিশ্ব বাজারের ঘাটতি মেটাতে সফটওয়্যার তৈরি বা উপযুক্ত বাজারে প্রবেশের জন্য প্রোডাক্ট তৈরি করে সেবার সহায়তা প্রধানে বেসিসকে  ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন । এটারই ধারাবাহিকতায় আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, মেশিন লার্নিং এর মতো নতুন টেকনোলজি ব্যবহার ও সফটওয়্যার তৈরিতে দেশীয় কোম্পানির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে ।

ডাটা সিকিউরিটি: ডিজিটালাইজেশন এর পাশাপাশি ডাটা সিকিউরিটিতে আমাদেরকে যথেষ্ট শক্ত ভিত্তি তৈরি করতে বেসিসের ভূমিকা অপরিহার্য । দেশীয় টেকসই  সিকিউরিটি সফটওয়্যার প্রস্তুতকারী ও সেবাদাতা কোম্পানির পরিমাণ বৃদ্ধি না করা গেলে ভবিষ্যতে দেশের অর্থনীতি ও জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে ।

উপরের ভাবনাগুলোর সঙ্গে আমার দৈনন্দিন সম্পৃক্ততা থাকার কারণে এবং বেসিস প্লাটফর্মের সহায়তায় মেম্বার কোম্পানি গুলো সহায়তায় জন্য প্রয়োজনীয় স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা এবং সেটার বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করা, সর্বোপরি দেশকে সফটওয়ার ও আইটিখাতে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার উদ্যোগে সবাইকে এগিয়ে আশা উচিত বলে আমি মনে করি।

-লেখক: ইকবাল আহমেদ ফখরুল হাসান (রাসেল), ডিভাইন আইটি লিমিটেড প্রতিষ্ঠাতা ও দেশের প্রথম ওয়েব-বেজড ইআরপি প্রিজমইআরপি সফটওয়্যার এর নির্মাতা ।