ঢাকা     ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

Biz Tech 24 :: বিজ টেক ২৪

ভেঙে পড়েছে সূর্যের বড় অংশ; ধেয়ে আসছে ভয়ংকর সৌরঝড়

বিজটেক ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:১৩, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আপডেট: ১৫:৪৯, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ভেঙে পড়েছে সূর্যের বড় অংশ; ধেয়ে আসছে ভয়ংকর সৌরঝড়

সম্প্রতি সূর্যের বড় একটি অংশ তার পৃষ্ঠ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এর ফলে সূর্যের উত্তর মেরুতে তীব্র সৌরঝড় শুরু হয়েছে। যা দেখে রীতিমতো হতবাক কয়ে গেছেন বিজ্ঞানীরা। মহাকাশে ভ্রমণরত জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ গত সপ্তাহে সূর্যের যে ছবি পাঠিয়েছে, সেখানেই ধরা পড়েছে এ চিত্র। বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করছেন, এ ঘটনার ফলে দক্ষিণ আমেরিকায় শক্তিশালী রেডিও ব্ল্যাকআউট তৈরি হতে পারে। এতে ব্যাহত হতে পারে টেলিযোযোগ ব্যবস্থা।

স্পেস ওয়েদার ডটকমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্যাটেলাইটগুলো ‘এক্স ১’ শ্রেণির সোলার ফ্লেয়ার তৈরি করেছে। সৌর শিখা বা সোলার ফ্লেয়ারের এক্স ওয়ান শ্রেণি হলো সবচেয় শক্তিশালী সৌর শিখা। গবেষকরা জানিয়েছেন, এবারের সৌর শিখার উৎপত্তি ‘এআর৩২১৩’ নামের সৌরকলঙ্ক থেকে। যেটি এখন সূর্যের মাঝামাঝি অবস্থানে পৃথিবীর দিকে মুখ করে আছে।

বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, এর ফলে পৃথিবীতে সৌরঝড় হতে পারে। সৌর শিখার ক্ষতিকর তেজস্ক্রিয় কণা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল ভেদ করে মানুষের ক্ষতি করতে পারে না। তবে বায়ুমণ্ডলের যে স্তরে জিপিএস এবং যোগাযোগের রেডিও তরঙ্গ প্রবাহিত হয়, সেখানে আঘাত করে রেডি তরঙ্গকে বাধাগ্রস্ত করে।

নাসার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, সূর্যের পৃষ্ঠ থেকে তার কোনো অংশ ভেঙে পড়া বা বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া নতুন কিছু নয়। গত ৬-৭ দশকে কয়েক বার এমন ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে নাসা। তবে সূর্যের কোনো অংশ ভেঙে পড়ে বাতাসে ভেসে নক্ষত্রটির প্রান্তে ঝড়ের সৃষ্টি করার ঘটনা নাসার ইতিহাসে এই প্রথম। এই ব্যাপারটিই অবাক করেছে মার্কিন মহাকাশবিজ্ঞানীদের।

পৃথিবীতে প্রথম সৌরঝড় চিহ্নিত করা হয় হয় ১৮৫৯ সালে। প্রায় ১৭ ঘণ্টায় সৌরঝড়টি পৃথিবীতে পৌঁছেছিল। টেলিগ্রাফ নেটওয়ার্কের ক্ষতি করেছিল সে সময়ে। বৈদ্যুতিক শক অনুভূত হয়েছিল বলেও জানিয়েছিলেন অনেক টেলিগ্রাফ অপারেটর। এরপর ১৯২১ সালে সৌরঝড়েও পৃথিবীর ক্ষতি হয়েছিল। বিজ্ঞানের পরিভাষায় এর নাম ‘ক্যারিংটন এফেক্ট’। তখন ঝড়ের কবলে পৃথিবীকে ঘিরে থাকা বিশালাকৃতির চৌম্বকক্ষেত্রে বড় বড় ফাটল ধরেছিল।